পুরুষের কোন চার বদগুণ নারীর কাছে অপ্রিয়?

Men-and-womenনারী পুরুষ উভয়েরই কিছু বদগুণ আছে৷ যা অপর পক্ষের কাছে বিরক্তির বিষয়। তবে সাধারণত পুরুষের চারটি বদগুণ নারীদের খুবই অপছন্দ৷ এগুলির বিস্তারিত বিবরণ এবং তার সমাধানের উপায় নিয়েই এই প্রতিবেদন৷

১. অন্তরঙ্গ মুহূর্তে মোবাইল ফোন ব্যবহার
ডেটিংয়ের সময় কাউকে মোবাইল ফোনে ম্যাসেজ পাঠালে কিংবা মোবাইল ফোনে অফিসিয়াল বা ব্যবসায়িক কথাবার্তা বলা শুরু করলে, নিশ্চয়ই সব নারীই বিরক্ত হবেন। তবে বিশেষজ্ঞরা বলছেন, এই ধরনের আচরণের মানে এটা নয় যে, সে সম্পর্কের বিষয়ে রূঢ়। ফলে এধরনের আচরণে বিভ্রান্ত হওয়াও উচিত নয়। এ বিষয়টাতে বিরক্ত হলে তা ঠাণ্ডা মাথায় বুঝিয়ে বলাই ভালো।

২. কোনও বিষয়ে মন্তব্য করতে না চাওয়া
নারীর কোনও প্রশ্নের উত্তর যদি পুরুষের জানা না থাকে, তখন তারা নিরব থাকে কিংবা জানায়, ‘আমি ওসব পাত্তা দিই না’। এমন উত্তর নারীর পছন্দ না হলে তাকে জানিয়ে দিতে হবে এই বিষয়ে আগ্রহের কথা। সে যদি বিরক্ত হয় বা কোনও উত্তর দিতে না চায়, তাহলে জানাতে ভুলবেন না যে, তার মতামত আপনার কাছে খুবই গুরুত্বপূর্ণ।

৩. কাজ থেকে ফেরার পর নীরবতা
কাজ থেকে ফেরার পর অধিকাংশ পুরুষই নীরব থাকেন। সারাদিনের কর্মব্যস্ততার পর অনেকেই খুব ক্লান্ত থাকেন। ফলে এ সময় বিশ্রামের জন্য কিছু সময় দেওয়া গুরুত্বপূর্ণ। এই সময় বিভিন্ন বিষয় নিয়ে আলোচনা শুরু করলে বিবাদ লাগার ঝুঁকি থাকে। তার বদলে এই ধরনের অবস্থায় একটু সময় নিয়ে বিশ্রামের সুযোগ দেওয়া ভালো।

৪. সাজগোজে সময় নিলে বিরক্ত হওয়া
পুরুষের সাজগোজে বা রেডি হতে সময় কম লাগে। আর নারী যখন সাজগোজে সময় নেয়, তখন পুরুষ বিরক্ত হয়। সাজগোজের সময় এই ধরনের তাড়া দেওয়া আবার অনেক নারীর খুবই অপ্রিয়। এই সময় পুরুষকে কোনও কাজে ব্যস্ত রাখাই সবচেয়ে ভালো উপায়।

Updated: December 6, 2015 — 9:38 pm

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

bdtips © 2015