কাউকে বিশ্বাস করতে পারছি না। কী করব?’

trust“আমি মাস্টার্স করছি। আমার কোন প্রেম নেই। বাবা মা আমার জন্য বর খুঁজছেন । ১ মাস আগে এক ছেলের বাবা আমাকে ১ বিবাহের ওয়েব থেকে পছন্দ করে প্রস্তাব দেন তার ছেলের জন্য । ছেলে দেখতে ভাল, শিক্ষিত । আমরা আমার জীবন বৃত্তান্ত পাঠাই । তিনিও ছেলের বৃত্তান্ত পাঠান , সঙ্গে একটা বিবরণ দেন যে তার মেয়ে খুব পসন্দ । আমরা চাইলে বিয়ে হবে ।

বিবরণ পরে আমরা খুব খুশি। আমি জীবনে প্রথম স্বপ্ন দেখা শুরু করি । উল্লেখ, ছেলে বিদেশ থাকে , পরিবার গ্রামে। যাই হোক এতে আমাদের কোন সমস্যা ছিল না । কিন্তু তারপর তিনি কোন যোগাযোগ করেন না। আমার বাবা নিজে তাকে ফোন দিতেন। ছেলের বাবা একজন ধার্মিক মানুষ । তিনি এলেন গত সপ্তাহে । তিনি বাসায় ৪ জন মুরুব্বি নিয়ে এলেন যারা তাঁদের আত্মীয় নয়। তিনি আমাদের বাড়ি সম্পত্তি নিয়ে অনেক প্রশ্ন করলেন। আব্বুকে নানানভাবে হাসি মুখে অপমান করলেন। তারপর মেয়ে দেখতে চাইলেন।

আমি গেলাম। উনি আমার প্রশংসা করলেন। আবার আমি ইংলিশ ভালো পারি না বলে কথাও শোনালেন। কিন্তু বিয়ে ঠিক করলেন না। আমি খুব কষ্ট পেলাম। জীবনে ভেবেছিলাম হবু বরকে ভালবাসবো । ছেলের বাবা লিখেছিলেন বলে তো আমি মনে ঘর বাঁধলাম । এখন সব স্বপ্ন ভেঙ্গে গেল । নিজেকে সামলাতে পারছি না । প্রথম পছন্দ তাই ভুলতে পারি না। বাবা মা-তো বর খুঁজছেন । আমি নিজেকে কীভাবে সামনের দিকে নিব? কাউকে বিশ্বাস করতে পারছি না। কী করব?’
পরামর্শ:

দেখুন আপু, আপনি রাগ করলেও বলি যে আপনি অকারণেই কষ্ট পাচ্ছেন। এত সামান্য বিষয়ে আসলে কষ্ট পাবার কিছু নেই। হ্যাঁ, ছেলের বাবা অন্যায় করেছেন। তিনি কিছু না ভেবেই বা না দেখেশুনেই জানিয়ে দিয়েছেন যে আপনারা রাজি থাকলে বিয়ে হবে। কিন্তু সাথে এটাও কিন্তু সত্যি আপু যে ছেলেটি আপনাকে কিছ বলেনি বা কোন ওয়াদা করেনি। পাত্রের কাছ থেকে কিছু না জেনে কেবল পাত্রের বাবার কথা মনে মনে স্বপ্নের ঘর বেঁধে ফেলা আসলে ছেলেমানুষি।

আমি বুঝতে পারছি আপু, এইসব সম্পর্কজনিত ব্যাপারে আপনি খুব স্পর্শকাতর। তবে বিষয়টা হচ্ছে কি, যেহেতু আরেঞ্জ ম্যারেজ করবেন, সেহেতু এইসব ব্যাপারের জন্য মনে মনে রেডি থাকাই ভালো। আমাদের দেশে বিয়ের ক্ষেত্রে নানান ভাবে মেয়েদেরকে অপমান করা হয়, যুগে যুগে এটা হয়ে আসছে।

আপনি এভাবে ভাবুন যে সেই পরিবারে বিয়ে না হয়ে আপনার জন্য কত বেশী ভালো হয়েছে। পাত্রপক্ষ কেমন, সেটা বিয়ের আগেই বুঝে গেছেন। এমনও তো হতে পারত যে বিয়ে হলো, তারপর আপনি ভয়ানক কোন অবস্থায় পড়লেন। তার চাইতে এটাই ভালো হয়েছে না? আপনার এমন আহামরি কোন বয়স হয়নি, মাত্র মাস্টার্স পড়ছেন। পুরো জীবন সামনে পড়ে আছে আপনার। যেহেতু পারিবারিক ভাবেই বিয়ে করবেন, ধৈর্য ধরুন। কারো সাথে বিয়ে ঠিক হলেই মনে মনে খুব বেশি আশা করবেন না আপু। বিয়ের আসর থেকেও বিয়ে ভেঙে যাবার ঘটনা অহরহ ঘটে। সেই তুলনায় আপনার সাথে এমন কোন ঘটনা ঘটেনি।

যদি মনে করেন যে নিজেকে সামলাতে পারছেন না, তাহলে কাউন্সিলিং করাতে পারেন। আর আপু, প্লিজ ওই ছেলেটিকে নিজের প্রথম পছন্দ ভেবে নিজেকে বঞ্চিত করবেন না। কাউকে একটু ভালো লাগলেই সেটা প্রথম পছন্দ হয় না। আমি নিশ্চিত খুব চমৎকার একজন জীবনসঙ্গী আপনার জন্য অপেক্ষা করছেন।

Updated: April 22, 2016 — 11:34 am

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

bdtips © 2015