কোথায় কোথায় কোটিপতির সুন্দরী মেয়েরা বয়ফ্রেন্ড ভাড়া করে !(ভিডিও)

bf-varaআজকের বিষয়টি তে একটু ভিন্নমাত্রা যোগ করেছি,অনেকের অনুরোধক্রমে মেয়েদের টাকা দিয়ে বয়ফ্রেন্ড ভাড়া করার বিষয়টি আবারো তুলে ধরলাম,
আজকের কলামটি চার ভাগে বিভক্ত করেছি আপনাদের জানার সুবিধার জন্য,প্রথমে তিনটি কলামে থাকবে এই ঘটনা সম্পর্কিত পুর্বের তিনটি লেখা এবং সর্বশেষ চতুর্থ কলামে থাকবে কোথায় কোথায় এগুলো দেখতে পাবেন আপনি।

প্রথম পর্বঃ প্রচার করে হয়েছিলো গত বছরের আগস্টে অবিশ্বাস্য ব্যাপার ঢাকাতে মেয়েরা বয় ফ্রেন্ড ভাড়া করছে মেয়েরা! আজব দুনিয়া বিস্তারিত জানতে নিউজটা দেখুন। ভিন্ন’র ধারাবাহিক অনুসন্ধানি প্রতিবেদনে গত কয়েকটি পর্বের প্রতিবেদনে আমরা প্রকাশ করেছিলাম রাজধানির রাস্তায় রাস্তায় যৌনকর্মিরা কিভাবে খদ্দের ভাড়া করে ও আভিজাত্য তারকাদের মত্তলিলা।
এবারের প্রতিবেদনের মুল আলচ্য বিষয় টাকার বিনিময়ে যৌনসঙ্গি ভাড়া করছেন নারীরা নিজেই। এটা বাইরের কোন ঘটনা নয়। ঢাকা সহ বড় বড় শহর গুলোতে এমন অহরহ ঘটনা ঘটছে। এবার মুল কথায় আসা যাক। কোন শ্রেণীর নারীরা ছেলেদের টাকার বিনিময়ে নিচ্ছে? মুলত দুই শ্রেণীর নারীরা তাদের চাহিদা মত ছেলে ভাড়া করছে। প্রথম সারিতে রয়েছে বিশ্বের বিভিন্ন দেশ থেকে ঢাকা শহরে আসা মানবাধিকার ও এনজিও নারী কর্মিরা।
এই শ্রেণীর বিদেশি নারীরা বাংলাদেশে আসার পর তাদের নিজেদের জৈবিক চাহিদা মেটানোরর জন্য ছেলেদের ভাড়া করে থাকে। আর দ্বিতীয় তালিকায় আছে বাংলাদেশের অভিজাত সমাজের নারীরা। যাদের কেউ কেউ আছেন প্রবাসীদের স্ত্রী অবার কেউবা ব্যবসায়ীদের স্ত্রী। কেউ আছেন মধ্যবয়সী বিধবা। এই তালিকায় আরো আছে সমাজের উচ্চবিত্ত বিগড়ে যাওয়া তরুনিরা। মুলত বাংলাদেশি এই সমস্ত নারীরা বিভিন্ন উপায়ে মাসিক অথবা দিন চুক্তিতে সঙ্গি ভাড়া করছে। অনুসন্ধান:: রাজু(ছদ্মনাম) শিল্পকলা একাডেমিতে মঞ্চনাটকে অভিনয় করেন।
রাজুর অভিনয় দেখে এক বিত্তশালী মহিলা রাজুকে ৩০,০০০ টাকার বিনিময়ে তার সাথে এক মাস সময় দেবার অফার করেন। রাজি হয়ে যায় বেকার রাজু। দিপ্ত(ছদ্মনাম) ডি জে পার্টিতে বিপাশার(ছদ্মনাম) সাথে পরিচয় হয়। বড়লোকের একমাত্র মেয়ে বিপাশা। মা আইনজীবী, বাবা ব্যবসায়ের কাজে দেশের বাইরে থাকেন। নিজের অসহায় মুহুর্ত দূর করার জন্য বিপাশা ভাড়া করেন দিপ্তকে। মাঠপর্যায় রাত ১.০০ টা গুলশান নাভানা টাওয়ার থেকে একটু পশ্চিম দিকে রাস্তার দুই দিকে কিছু তরুন দাঁড়িয়ে আছে। লক্ষ একটাই কোন নারী চলন্ত প্রাইভেট কার থেকে নেমে যদি ভাড়া করে নিয়ে যায় তাদের! এবার আসা যাক এই বিষয়ে প্রতিকার কি? এই বিষয়টি নিয়ে আলোচনা করেছিলাম সোমা কামালের সাথে, তিনি জানালেন অধুনা সংস্কৃতির প্রভাবে আমদের মূল্যবোধ ক্রমেই ফিকে হয়ে যাচ্ছে, আমরা আমাদের মূল্যবোধ নষ্ট করে ফেলছি দিনে দিনে,পারিবারিক বন্ধন হ্রাস পাচ্ছে ক্রমে ক্রমে এটি একটি অন্যতম কারণ,এই বিষয়টি নিয়ে পরিবারকে সর্বপ্রথম এগিয়ে আসতে হবে,পাশাপাশি বাড়াতে হবে ধর্মীয় অনুশাসন,তাই বলে সন্তানের চাওয়া কে একেবারেই ফেলে দেওয়া যাবে না।

দ্বিতীয় পর্বঃ প্রচার করা হয়েছিলো গত বছরের অক্টোবরে আবারো ভিন্ন ডট কমের ভিন্নধর্মী আলোচনায় আপনাদেরকে স্বাগতম জানাচ্ছি। প্রতিনিয়ত আমাদের অগোচরে সমাজে ঘটে চলেছে বিভিন্ন ঘটনা আর সেই সব ঘটনার কিছু খন্ডাংশ সব সময় আপনাদের সামনে আমরা তুলে ধরার চেষ্টা করি। কোনরুপ নগ্নতা প্রচার নয় আপনাদেরকে সচেতন এবং নিরাবিল আনন্দ দেওয়ায় আমাদের মুল লক্ষ্য। ভিন্ন ডট কমে প্রতিদিন দেশের বিভিন্ন অঞ্চল থেকে 88 জন প্রতিনিধি তাদের লেখা পাঠাচ্ছেন। প্রতিটি লেখা আমারা যাচাই বাচাই করে সত্যতা খুজে পেলেই তবে প্রচার করি। যাহোক এবার মুল আলোচনায় আসা যাক, আমরা গত একটি পর্বে আলোচনা করেছিলাম রাজধানী ঢাকা শহরে নারীরা নিজেই টাকা দিয়ে বয়ফ্রেন্ড ভাড়া করছে এটার সত্যতা হিসেবে আমরা আপনাদের সামনে কিছু উদাহরণ ও দিয়েছিলাম। বয়ফ্রেন্ড ভাড়া করা মহিলাদের মধ্য আছেন সমাজের উচ্চবিত্ত মধ্যবয়সী নারী,ধনীর দুলালী এবং বিদেশ থেকে আসা বিভিন্ন সংস্থার নারী কর্মীরা।

এখন আপনাদের সামনে যে ঘটনাটি তুলে ধরবো সেটা আমাদের কাছে পাঠিয়েছেন সাইফ বনানী থেকে ঘটনাটি গুলশানের। বৃহস্পতিবার গুলশানের একটি অভিজাত রেস্টুরেন্টে ডিজে পার্টি চলছিল, রাত নয়টা থেকে শুরু হয়ে পার্টি চলে মধ্যরাত পর্যন্ত, দলে দলে আসতে থাকে তরুণ তরুণীরাগ এক সময় নাচে গানে মেতে ওঠে অনুষ্ঠানের সবাই। **একটু বলে রাখি ইদানিং এই সব পার্টি থেকেই কোটিপতির সুন্দরী তরুণীরা কিংবা সংগী হারা নারীরা তাদের মনোরঞ্জনের জন্য টাকার বিনিময়ে স্মার্ট তরুণদের কে চুক্তিতে বাসায় নিয়ে যায়** পার্টির আয়োজন বেশ ভালোই চলছিল, সবাই সবার পরিচিত না তবুও যেন মনে হচ্ছে সবাই একই প্লাটফর্মের দীর্ঘ দিনের চেনা। ডিজে পার্টি চলাকালীন আনুমানিক রাত একটার দিকে পেছন থেকে শোনা গেল দুই মহিলার ব্যাপক হট্টগোল, কেও কেও দেখার জন্য কাছে এগিয়ে গেলেন। দেখা মিললো এক অদ্ভুত কান্ড! যেটা আসলে সিনেমাকেও হার মানিয়েছ। দুই মেয়ে এক ছেলেকে নিয়ে টানাহেঁচড়া করছে, এক মেয়ে বলছে আমি নাবিলা চৌধুরী যা বলি তাই করি। আমি আগে পছন্দ করেছি আমিই নিয়ে যাবো। আরেক মেয়ে বলছে সাধ্য থাকলে নিয়ে যাও, আমি ধরেছি তাই কাওকে দিবো না। আমার পছন্দের জিনিস কেও নিতে পারবে না, এই দুই তরুণীর হট্টগোল এক সময় প্রকাশ্যে হাতাহাতি তে রুপ নেই। পুরো অনুষ্ঠানে ছড়িয়ে পড়ে ঘটনার রেশ, পরে আয়োজকদের মধ্যস্থতায় বিষয়টি মিমাংসা করা হয় এবং দুই মেয়ের হাত থেকে নিরীহ ছেলেটি কে সরিয়ে নেওয়া হয়।রেস্টুরেন্টের এক কর্মচারীর সাথে কথা হয় নাম প্রকাশ না করার শর্তে উনি জানালেন এটা আর নতুন কি? আগে শুনতাম টাকা দিয়ে ছেলেরাই মেয়েদেরকে নিয়ে যায় কিন্তু অনেক দিন থেকে দেখছি ঘটনা উল্টো, মাঝে মধ্যে স্মার্ট ছেলে কম থাকলে নেশার ঘোরে কিছু বখাটে মেয়ে আমাদের উপরেই ঝাপিয়ে পড়ে! আবার অনেক সময় দেখা যায় রাস্তা থেকে তুলে নিয়ে যাই, হায়রে টাকা থাকলে কত কিছুই না সম্ভব!

বিঃদ্রঃ ঘটনাটি ভালো লাগলে অবশ্যই মন্তব্য করে জানাবেন, আর আপনার আশেপাশে ঘটে যাওয়া যেকোন চমকপ্রদ ঘটনা আমাদেরকে মেইল কিংবা মেসেজের মাধ্যমে জানাতে পারেন- ছবি কিংবা ভিডিও সহ, প্রচারযোগ্য হলে আমরা অবশ্যই প্রচার করবো। ধন্যবাদ

তৃতীয় পর্বঃ প্রচার করা হয়েছিলো এই বছরের জানুয়ারি তে বেশ কিছুদিন পরে আবারো পাঠকের কলাম নিয়ে আপনাদের সামনে হাজির হয়েছি,আশা করি সবাই ভালো আছেন এবং ভিন্ন ডট কমের সাথেই আছেন. আজকের লেখাটি পাঠিয়েছেন আমাদের কাছে গুলশান থেকে তৌফিক,পেশায় একজন ব্যাবসী. ক্রমবর্ধমান সমাজে আধুনিকতার সাথে তাল মিলিয়ে মানুষের মূল্যবোধ যে ধংসের দারপ্রান্তে সেটা আপনারা খুব সহজেই বুঝতে পারবেন আজকের এই লেখাটি পড়লে. সমাজটা যাচ্ছে কোথায় দিনে দিনে কি হচ্ছে এসব সত্যি বড়ই চিন্তার বিষয়! তৌফিক কাজ শেষ করে একটু দেরীতে বাসার উদ্দেশ্য গুলশানের নাভানা টাওয়ার থেকে পুর্ব দিকে অগ্রসর হলেন,কিছুদূর হাঁটতেই দেখতে পেলেন কিছু তরুণ গ্যাপে গ্যাপে দাড়িয়ে আছে,হঠাৎ করেই পুরাই অবিশ্বাস্য ভাবে একটি বিষয় লক্ষ্য করলেন তিনি,একজন সুন্দরী মহিলা বয়স আনুমানিক ত্রিশ থেকে বত্রিশ হবে গাড়ি থেকে নামলেন এবং কয়েকজন তরুনের মধ্য থেকে একজনকে নিয়ে চলে গেলেন, কিছুটা কৌতুহল বশতঃ তৌফিক সাহেব কয়েকজন জিজ্ঞেস করলেন বিষয়টা কি? কিন্তু কেউ সরাসরি মুখ খুলতে চাইলেন না,তৌফিক যা বোঝার সেটা বুঝে নিলেন এবং নিজের কৌতুহল মিটানোর জন্য নিজেই দাড়িয়ে রইলেন. রাত তখন প্রাণ একটা খুব বেশী গাড়ি চলাচল করছে না,মাঝেমধ্যে পুলিশের টহলদার গাড়ি ছুটে চলেছে.
কিছু সময় দাড়ানোর পরে আচমকা একটি গাড়ি এসে দাড়িয়ে গেলো তার সামনে এবং গাড়ির ভিতর থেকে একজন সুন্দরী চিকনা মহিলা তাকে ইশারায় ডাকছে,সাহস নিয়ে তৌফিক কাছেই গেলেন,তখন ভদ্রমহিলা বললেন আজকে তুমিই চলো আমার সাথে,আগামীকাল দুপুরে আমার ড্রাইভার তোমাকে বাসায় পোঁছে দিবে. শুধু গুলশান নয় এমন খেলা বনানী এবং ধানমন্ডি এলাকায় অহরহ চলছে,তৌফিক সাহেবের ভাগ্যবান না চাইতেই অনেক কিছুই পেয়ে গেছেন,কিন্তু তৌফিক সাহেব এই সুন্দরী মহিলার সাথে গিয়েছিলেন কিনা সেটা কিন্তু আমাদেরকে বলেননি,আমরা এই বিষয়ে তৌফিক সাহেব কে পুনরায় মেইল করেছিলাম উনি গিয়েছিলেন কিনা কিন্তু দুঃখের বিষয় ভদ্রলোক কোন উত্তর দেননি,পাঠক আপনাদের কি মনে হয়,তৌফিক সাহেব কি ভদ্রমহিলার প্রস্তাবে রাজি হয়েছিলেন?

চতুর্থ পর্বঃ উপরের তিনটি লেখা থেকে আপনারা হয়তো ইতোমধ্যে বুঝতে পেরেছেন ঢাকা শহরেই কোথায় কোথায় এগুলো হয়,তবে ঢাকার বাইরে এইসব ঘটনাবলীর কোন তথ্য আমাদের হাতে নেই কিন্তু উপরের তিনটি ঘটনা প্রচার করার পরে অনেকেই ঢাকার বাইরের বিভিন্ন অঞ্চলের এমন তথ্য আমাদের কমেন্টে তুলে ধরেছেন তবে নির্ভরযোগ্য না হবার কারনে সেগুলো দিতে পারলাম না তবে কারও অতি আগ্রহ থাকলে কমেন্ট করুন পেয়ে যাবেন
সুত্র: ভিন্নডটকম

Updated: March 24, 2016 — 12:45 am

2 Comments

Add a Comment
  1. Ami Obak hoyechi ajob lagche beshoyta vabte parcina thanks

  2. ETATO APNI GULSHAN ELAKAR KOTHA BOLECHEN … BUT DHANMONDI AND BANANI ER KOTHAI EMON BOY FRIEND VARAR HAT BOSE TA KI EKTU JANABEN

    RAJVI

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

bdtips © 2015