আমি জানি এখনকার সময়ে ঢাকার মেয়েরা কেমন হয়…

file-51নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একজন জানিয়েছেন নিজের সমস্যার কথা।

“আমার বয়স ২১ বছর। দেশের বাইরে চলে যাবো ব্যাচেলর কমপ্লিট করতে, ২০১৬ সালে। কিছুদিন আগে আমি আমার গ্রামে যাই। গ্রামের সব আত্মীয়ের সাথে শেষ কিছুদিন কাটানোর জন্য। গ্রামে যাওয়ার পর আমার এক মামাতো বোনকে দেখি যে অনেক সুন্দর এবং খুবই ভদ্র একটা মেয়ে। যেহেতু আমি ঢাকায় বড় হয়েছি তাই আমি জানি এখনকার যুগে ঢাকার মেয়েরা কেমন হয়।

কিন্তু ঐ মেয়েটা পুরো উলটো। গ্রামের পরিবেশ পুরোটা যেন তার মাঝে আছে। যাইহোক, আমি তাকে দেখে বিয়ের প্রস্তাব দেই। তারপর সে বলে তার পরিবার এবং আমার পরিবার যদি রাজী হয় তাহলে সে রাজী। তো আমি তাকে কথা দেই, আমি বাবা মাকে নিয়ে তার বাসায় আসবো। সে খুশি হয়। আমি যেদিন গ্রাম ছেড়ে চলে আসবো সেদিন সে লুকিয়ে লুকিয়ে আমাকে বিদায় দিতে আসে।

গ্রাম থেকে আসার পর আমি সবসময় আমার রুমে থাকি আর তাকে নিয়ে চিন্তা করি। মা বাবাকে বলি। তারা আমাকে যা বলে তা আমি কখনো তাদের থেকে আশা করিনি। তারা বলে, আমার ওই কাজিনের বংশের সাথে আমার ফ্যামিলি জড়াতে চায়না। কারণ ওরা নাকি সোসাইটি বুঝেনা। তাদের পরিবার নাকি অনেক নিচু মনের।

হ্যাঁ, এটা আমি মানি যে ওর বাবা একটু লোভী কিন্তু তাই বলে এখানে মেয়েকে দোষ দেয়ার কী আছে আমি বুঝিনা।  আমার মা সবসময় আমার পক্ষে থাকতো কিন্তু এখন তিনি আমার পক্ষেও নাই। আমার বাবা আমাকে পরিষ্কার বলে দিয়েছেন ঐ মেয়েকে বিয়ে করলে তিনি আমাকে ছেড়ে দিবেন। আমার কাছে এখন দুইটি উপায় খোলা আছে। হয় আর কথা বাড়িয়ে বাইরে পড়াশোনা করতে চলে যাও।

নাহয় আমার কাছে অনেকগুলো জব এর সুযোগ আছে মোটামুটি। ওগুলোর একটায় ঢুকে গিয়ে মেয়েটাকে সারাজীবনের জন্য নিজের করে নেওয়া। হয়তো সে আসবে না, কিন্তু চেষ্টা করতে পারি। এদিকে আমার যাওয়ার সময়ও হয়ে এসেছে।  আমার বাবা মাকে আমি অনেক বুঝাই কিন্তু তারা বুঝছে না। তারা তাদের বংশ পরিচয় যেটা আমি জীবনেও চাইনি, সেগুলো ধরে এই রকম একটা মেয়েকে ছেড়ে দিচ্ছে। এটা সত্য যে এই এই মেয়েটাকে এতটা চাই কারণ এই মেয়ের মত একটা মেয়ে পেতে আমাকে অনেক কষ্ট করতে হবে, যা আমি জীবনে পাবোনা। এখন আপনার কাছে আমি পরামর্শ চাইছি। আমি কোন পথ বেছে নিবো?”

পরামর্শ:

দেখুন ভাইয়া, সত্যি করে বলতে কি, জীবন সম্পর্কে আপনি এখনো অনেক কিছুই জানেন না। এবং আমি মনে করি কেবল চোখের দেখায় মেয়েটি সম্পর্কে ইম্প্রেসড হয়ে এত বড় একটা ভুল সিদ্ধান্ত নেয়ার কোন মানে হয় না। আপনার কোনমতেই উচিত হবে না বিদেশে গিয়ে লেখাপড়ার সুযোগ হাতছাড়া করা। মেয়েটিকে এই মুহূর্তে বিয়ে করা কেন আপনার উচিত হবে না, আমি পয়েন্ট বাই পয়েন্ট লিখছি।

১) আপনারা দুজনেই অনেক ছোট। এই মুহূর্তে ঘর পালিয়ে বিয়ের পরিণাম অশুভ হতে বাধ্য।

২) মেয়েটিকে আপনি ভালমত চেনেন না বা মেয়েটির সাথে আপনার কোন সম্পর্ক নেই। কেবল দেখেই আপনি সিদ্ধান্ত নিয়ে ফেলেছেন যে মেয়েটি খুব ভালো। ভাইয়া, চোখের দেখায় কি মানুষ চেনা যায়? অতিরিক্ত ভালো কোন কিছুই আসলে ভালো নয়, কথাটি মনে রাখবেন।

৩) ভালো খারাপ মানুষ সব স্থানেই আছে। ঢাকার মেয়ে হলেই খারাপ আর গ্রামের মেয়ে হলেই ভালো, এটা অত্যন্ত ভুল ধারণা।

৪) আপনি বিদেশে যাবেন, পৃথিবী দেখবেন। সময়ের সাথে আপনার চিন্তা ধারা বদল হবে। আজ যে মেয়েকে দেখে আপনি মুগ্ধ, একদিন এই মেয়েকেই আপনার গ্রাম্য মনে হবে।

৫) মা বাবার মতামত অগ্রাহ্য করা মোটেও উচিত হবে না। নিজেদের আত্মীয়কে তাঁরাই ভালো চেনেন। তাই মা বাবার মনে কষ্ট দিয়ে এমন বোকামি করবেন না।  আপনার মনে এখন যেটা কাজ করছে, সেটা মোহ ভাইয়া। এই মোহ অচিরেই কেটে যাবে। আপনার স্থানে হলে আমি অতি অবশ্যই বিদেশ চলে যেতাম। মেয়েটি আপনাকে ভালোবাসে কিনা আপনি জানেন না। তাই কোন অনিশ্চিত বিষয়ে ভরস করে নিজের জীবন ভুল পথে থেকে দেবেন না প্লিজ।

Updated: January 29, 2016 — 9:17 am

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

bdtips © 2015